1. pundrotvnews@gmail.com : admin :
বন্যায় ৩৪ হাজার ৬৫ হেক্টর ফসলি জমির ক্ষতি বগুড়ায় - Pundro TV
বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ০১:১৪ অপরাহ্ন

বন্যায় ৩৪ হাজার ৬৫ হেক্টর ফসলি জমির ক্ষতি বগুড়ায়

পুন্ড্র.টিভি ডেস্ক
  • প্রকাশিতঃ রবিবার, ২৬ জুন, ২০২২
dvdfgfd

অতিবৃষ্টি কারনে বগুড়া জেলার সারিয়াকান্দি, সোনাতলা ও ধুনট উপজেলায় ব্যাপক ক্ষতিও আগাম বন্যার  হয়েছে। রোপা আমন মৌসুমের শুরুতেই এই ক্ষতির কারনে কৃষকের কোমর সোজা করে দাঁড়াতে বেগ পেতে হবে।

dvdfgfd

জেলার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের তথ্য মতে  এবছর বগুড়া জেলায় চাষাবাদ  লক্ষ্যমাত্রা ছিল আউশ ১৪ হাজার ৮৭৫ হেক্টর। এর মধ্যে আক্রান্ত জমির পরিমান ৫৯০ হেক্টর। পাট চাষের লক্ষমাত্রা ধরা হয়েছিলো  ১২হাজার ২৫৭ হেক্টর। আক্রান্ত হয়েছে ২হাজার ৮৫০ হেক্টর, ভুট্টা ৫১৫ হেক্টর আক্রান্ত জমি ৪ হেক্টর, আখ ১২৬ হেক্টর আক্রান্ত ৩ হেক্টর, আমন বীজতলা  ১হাজার ২৬২ হেক্টর,আক্রান্ত জমির পরিমান  ১ হেক্টর।

আউশ, সবজি,পাট, আখসহ অনেক কিছু ক্ষতি সাধন হয়েছে বলে জানা যায় বগুড়া আঞ্চলিক কৃষি অধিদপ্তর থেকে ।

ক্ষতি সাধিত এলাকা সারিয়াকান্দি উপজেলার চালুয়াবাড়ি,কাজলা,হাটশেরপুর, সারিয়াকান্দি, কর্নিবাড়ি,কুতুবপুর,চন্দনবাইশা কামালপুর, বোহাইল, পৌরসভার আংশিক। সোনাতলা উপজেলায় ক্ষতি হয়েছে  তেকানিচুকাইনগর, পাকুল্যা, জোরগাছা,মধুপুর ইউনিয়ন।

ধুনুটে উপজেলায় ক্ষতি হয়েছে শিমুলবাড়ী,সহড়াবাড়ি,বানিয়াজন,ভান্ডারবাড়ি,এবং গোসাইবাড়ি ইউনিয়নের চুনিয়াগাড়ী। তাদের দেওয়া তথ্য মতে সারিয়াকান্দি উপজেলার আউশধান চাষ করা হয়েছিল ৭০০ হেক্টর যার মধ্যে ৪৭০ হেক্টর ফসল নষ্ট হয়ে গেছে। সবজি ১৯০ হেক্টর চাষ করে ক্ষতি ১৫ হেক্টর, পাট ৭০৭০ হেক্টর ক্ষতি ২৩০০ হেক্টর, ভুট্টা ৫ হেক্টর ক্ষতি ৪ হেক্টর।

সোনাতলায় ক্ষতি আউশ ৭৬৫ হেক্টর ক্ষতি ১২০ হেক্টর, পাট ১৬১০ হেক্টর ক্ষতি ৫২০ হেক্টর, সবজি ১৮০ হেক্টর ক্ষতি ২ হেক্টর, বীজতলা ৬৫ হেক্টর ক্ষতি ১ হেক্টর।

ধুনট উপজেলায় আউশ চাষাবাদ হয় ২১০০ হেক্টর ক্ষতি সাধন হয়নি, আখ ৩০ হেক্টর ক্ষতি ৩ হেক্টর, পাট ২১৭০ হেক্টর ক্ষতি ৩০ হেক্টর, ভুট্টা ৭৫ হেক্টর ক্ষতি হয়নি।

বগুড়া জেলায় মোট চাষাবাদ যোগ্য জমি ৩৭০০৪ হেক্টর তার ক্ষতি ৩৪৬৫ হেক্টর ফসলি জমি।

এর মধ্য আউশ ধানের ক্ষতি ৫৯০ হেক্টর, পাট ২৮৫০ হেক্টর, সবজি ১৭ হেক্টর, বীজতলা ১ হেক্টর, ভুট্টা ৪ হেক্টর, আখ ৩ হেক্টর।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর বগুড়ার উপ-পরিচালক মো: দুলাল হোসেন, জানান, আউশ ধানের ক্ষতি হয়েছে বেশী। তবে পাটের তেমন ক্ষতি হয়নি। পানি বেশি দিন থাকলে ক্ষতি হতো।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২১
Developed By Bongshai IT