1. pundrotvnews@gmail.com : admin :
মারিউপোলেই ২২ হাজার বেসামরিক লোক নিহত - Pundro TV
রবিবার, ২৬ জুন ২০২২, ০১:১৩ পূর্বাহ্ন

মারিউপোলেই ২২ হাজার বেসামরিক লোক নিহত

পুন্ড্র.টিভি ডেস্ক
  • প্রকাশিতঃ শুক্রবার, ২৭ মে, ২০২২
dvdfgfd

ইউক্রেনে রাশিয়ার অভিযান শুরুর পর ডনবাসের দোনেস্ক অঞ্চলে এ পর্যন্ত অন্তত ৪৩১ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছে। একই সময়ে আহত হয়েছে ১ হাজার ১৬৮ জন।

dvdfgfd

টেলিগ্রাম বার্তায় রুশ বাহিনীর হামলায় হতাহতের খবর জানিয়েছেন দোনেস্ক গভর্নর পাভলো কিরলিয়েনকো। এদিকে ইউক্রেনের দোনেস্ক অঞ্চলে রাশিয়ার হামলায় এখন পর্যন্ত দেড় শতাধিক শিশু নিহত হয়েছে। আর পুরো ইউক্রেনে কমপক্ষে ২৪০ শিশু মারা গেছে।

দোনেস্কের হতাহতের সংখ্যা দিতে পারলেও ইউক্রেনের মারিউপোল এবং ভলোনোভাখা শহরের বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারেননি তিনি। তিনি বলেন, দোনেস্কের বেসামরিক নাগরিকদের ঘরবাড়ি ধ্বংস করে চলছে রাশিয়ান সশস্ত্র যোদ্ধারা। তাদের হামলার কারণে লাখ লাখ মানুষ বাড়ি ছাড়া।

এদিকে বুধবার মারিউপোলের মেয়রের এক উপদেষ্টা অনুমান করে বলেন, গত তিন মাস ধরে রাশিয়ার চলমান অভিযানে কমপক্ষে ২২ হাজার বেসামরিক নাগরিকের মৃতু্য হয়েছে। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে বিশেষ অভিযানের শুরুর ঘোষণা দেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। দেশটির সেনাবাহিনীর ক্রমবর্ধন আক্রমণে ইউক্রেনের সামি, খারকিভ, মারিউপোল, দোনেস্ক, খেরসনের বহু অবকাঠামো ধ্বংস হয়ে গেছে। বেশির ভাগ জায়গায় ইউক্রেনের যোদ্ধারা প্রতিরোধ গড়ে তোলায় পিছু হটছে রাশিয়ান বাহিনী।

এদিকে ইউক্রেনের দোনেস্ক অঞ্চলে রাশিয়ার হামলায় এখন পর্যন্ত দেড় শতাধিক শিশু নিহত হয়েছে। তিন মাসেরও বেশি সময় ধরে চলা এ যুদ্ধে বহু বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছে। এ সংখ্যা দিনে দিনে আরো বাড়ছে। তবে সবচেয়ে পরিতাপের বিষয় যে, হামলা থেকে শিশুরাও রক্ষা পাচ্ছে না। দেশটির অন্য যে কোনো এলাকার চেয়ে দোনেস্ক অঞ্চলে সবচেয়ে বেশি শিশু প্রাণ হারিয়েছে। পুরো দেশে এখন পর্যন্ত কমপক্ষে ২৪০ শিশুর মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। আরেকটি সূত্র জানায়, ডনবাস অঞ্চলে রুশ বাহিনীর আক্রমণের মুখে ইউক্রেনের সৈন্যরা প্রচণ্ড চাপের মুখে আছে বলে স্বীকার করেছে কিয়েভের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

ইউক্রেনের পূর্ব দিকের ডনবাস অঞ্চলের সেভারোদোনেস্ক এবং লিসিচানস্ক এই দুটি শহরকে ঘিরে ফেলার চেষ্টায় তীব্র বোমাবর্ষণ করছে রাশিয়া। লুহানস্কের অধিকাংশ এলাকাই এখন রুশ বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে। যে এলাকাগুলো তাদের নিয়ন্ত্রণে নেই সেগুলোই দখলে নেওয়ার চেষ্টা করছে রুশ সেনারা।

কিয়েভে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ওলেক্সান্দর মোতুজিয়ানিক বলেন, ইউক্রেনীয় বাহিনী এখনো ঐ দুটি শহরে যাওয়ার প্রধান রাস্তা নিয়ন্ত্রণ করছে। তবে যুদ্ধ এখনো চলছে। লুহানস্ক প্রদেশের গভর্নর সেরহি হাইদাই বলেন, ঐ রাস্তা লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ চলছে কিন্তু এটি এখনো সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়নি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২১
Developed By Bongshai IT