1. pundrotvnews@gmail.com : admin :
ইউক্রেন ইস্যুতে বাইডেনকে সতর্ক হওয়ার আহ্বান ম্যাক্রোঁর। ভিডিও - Pundro TV
বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১২:২৮ পূর্বাহ্ন

ইউক্রেন ইস্যুতে বাইডেনকে সতর্ক হওয়ার আহ্বান ম্যাক্রোঁর। ভিডিও

পুন্ড্র.টিভি ডেস্ক
  • প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২২
dvdfgfd

ইউক্রেন ইস্যুতে মন্তব্য করার ক্ষেত্রে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের আরও সতর্ক হওয়া উচিত বলে মনে করেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। বাইডেনের সাম্প্রতিক ‘গণহত্যা’ বিষয়ক মন্তব্যের জেরেই এ আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

dvdfgfd

মঙ্গলবার রাতে ফ্রান্সের টেলিভিশন সংবাদমাধ্যম ফ্রান্স টু’কে সাক্ষাৎকার দেন ম্যাক্রোঁ। সেখানে ইউক্রেন ইস্যুতে বাইডেনের সাম্প্রতিক মন্তব্য তিনি সমর্থন করেন কিনা— প্রশ্ন করা হয়।

জবাবে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘না, আমি এটা সমর্থন করছি না; বরং আমি বলব, ইউক্রেন ইস্যুতে কোনো মন্তব্য করার আগে আমাদের আরও সতর্ক হওয়া উচিত।

গত মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিমাঞ্চলীয় অঙ্গরাজ্য আইওয়ায় দেশে বাড়তে থাকা জ্বালানি গ্যাসের মূল্য নিয়ন্ত্রণের পরিকল্পনা সম্পর্কে সাংবাদিকদের সঙ্গে মত বিনিময় করেন বাইডেন। এ সময় তিনি বলেন, ‘আপনার পারিবারিক বাজেট বা আপনার (গাড়ির) ট্যাংক পূরণ করার সামর্থ্য – এর কোনোটিই অর্ধেক পৃথিবী দূরে একজন স্বৈরশাসকের যুদ্ধ ঘোষণা কিংবা গণহত্যা করছে কিনা তার ওপর নির্ভর করা উচিত নয়।’

বাইডেন আরও বলেন, (ইউক্রেনে) গণহত্যা সংঘটিত হয়েছে কি না তা নির্ধারণ আইনজীবীদের ওপর নির্ভর করবে। তবে আমার কাছে অবশ্যই মনে হচ্ছে ইউক্রেনে গণহত্যা হচ্ছে।’

রাশিয়ার সমারিক অভিযান শুরুর পর ইউক্রেনের ঘটনা বর্ণনা করতে এবারই প্রথম ‘গণহত্যা’ শব্দটি ব্যবহার করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের এই প্রেসিডেন্ট। এর আগে পুতিনকে ‘যুদ্ধাপরাধ’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছিলেন তিনি।

ফ্রান্স টু টেলিভিশনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ম্যাক্রোঁ বলেন, ‘আমরা ইউক্রেনে শান্তি চাই। আমাদের মনে রাখা উচিত, রাশিয়া ও ইউক্রেনের জনগণ পরস্পরের সঙ্গে ভাতৃত্বের বন্ধনে আবদ্ধ এবং এমন কোনো শব্দ আমাদের কখনও ব্যবহার করা উচিত নয়, যা যুদ্ধকে আরও উস্কে দিতে পারে।’

পশ্চিমা দেশগুলোর সামরিক জোট ন্যাটোকে নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরুর নির্দেশ দেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এ নির্দেশ প্রদানের ২ দিন আগে, ২২ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলীয় দুই এলাকা দনেতস্ক ও লুহানস্ককে (দনবাস) স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেন তিনি।

বুধবার ৪৮তম দিনে পৌঁছেছে রুশ বাহিনীর অভিযান। শুরুর দিকে ইউক্রেনের বিভিন্ন শহরে তৎপরতা চালালেও বর্তমানে মূলত দেশটির দক্ষিণাঞ্চল ও পূর্বাঞ্চলেই মনযোগ দিচ্ছে রুশ বাহিনী। দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় উপকূলীয় শহর মারিউপোলে ইতোমধ্যে ১ হাজারেরও বেশি ইউক্রেনীয় সেনা আত্মসমর্পণ করেছে বলে বুধবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২১
Developed By Bongshai IT