1. shahajahanbabu@gmail.com : admin :
নীলফামারীতে মুক্তিপণ না পেয়ে শিশুকে হত্যা - Pundro TV
বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ০৫:২২ অপরাহ্ন



নীলফামারীতে মুক্তিপণ না পেয়ে শিশুকে হত্যা

স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, ১২ অক্টোবর, ২০২৩
আসিফ ইশতিয়া লিওন :
  জলঢাকায় আমেনা আক্তার নামে এক শিশুকে অপহরণের পর হত্যার অভিযোগ উঠেছে। বুধবার (১১ অক্টোবর) বিকেলে জলঢাকা উপজেলার গোলমুন্ড থেকে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করা হয়।
এ সময় এক গৃহবধূসহ তিনজনকে আটক করে পুলিশ। তবে পুলিশ আটককৃতদের বিষয়ে বিস্তারিত প্রেস ব্রিফিংয়ে জানাবে বলে জানিয়েছে। শিশু আমেনা আক্তার উপজেলার গোলমুন্ডা ইউনিয়নের চর হলদিবাড়ি গ্রামের আলকাজ আলীর মেয়ে।
স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত সোমবার বিকেল ৫টার দিকে বাড়ির বাইরের আঙ্গিনায় প্রতিদিনের মতো খেলাধুলা করতে যায় শিশু আমেনা। সারাদিন রোজা থাকায় আমেনার মা নার্গিস বেগম সন্ধ্যায় রান্না ঘরে ইফতার করতে যায়। ইফতার শেষে নামাজ পড়তে যায়। তখনও আমেনা উঠানেই খেলছিল। নার্গিস বেগম নামাজ শেষে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে উঠানে এসে দেখেন আমেনা নেই।
আমেনাকে না পেয়ে সবাই মিলে বিভিন্ন জায়গায়, এমনকি বাড়ির পাশের পুকুরে নেমেও খোঁজাখুঁজি করে। কিন্তু শিশু আমেনাকে কোথাও খুঁজে পাওয়া যায়নি। পরে শিশুটির বাড়িতে ফোন করে এক লাখ পঞ্চাশ হাজার টাকা পাঠানোর কথা বলা হয়। আর তা না করলে শিশু আমেনাকে মেরে ফেলার হুমকি দেওয়া হয়। তখন শিশুটির অপহরণকারীদের কথা মতো এক লাখ পঞ্চাশ হাজার টাকা দিতে রাজি হন।
এরপর অপহরণকারীরা শিশুটির ঘুমন্ত ছবি তার বাবার মোবাইলের ইমুতে পাঠায় ও মুক্তিপণ দাবি করে। পরে শিশুটির পরিবার সেই নম্বরে যোগাযোগ করলে মোবাইল নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়। এরপর বুধবার বিকেলে জলঢাকা উপজেলার গোলমুন্ডার তিস্তা নদীর চর থেকে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করা হয়।
শিশুটির বাবা আলকাজ আলী বলেন, আমি তো তাদের কথা মতো টাকা দিতে রাজি ছিলাম। তাহলে আমার মেয়েটাকে কেন মেরে ফেলল। আমি বিচার চাই।
জলঢাকা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মুক্তারুল আলম বলেন, এ ঘটনায় তিনজকে আটক করা হয়েছে। বিস্তারিত পরে প্রেস ব্রিফিংয়ে জানানো হবে

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২২
Developed By ATOZ IT HOST